সুস্বাদু মেজবানি মাংস রান্নার রেসিপি

 

মার্জিয়া খান : মেজবানি মাংস রান্না করা খুবই কঠিন কাজ বলে কেউ কেউ মনে করেন। কারণ চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী খাবার হওয়ায় বাইরের শহরগুলোর অনেকেই এটা রান্না করতে পারেন না। অথচ অনেকে মেজবানি মাংস খুবই পছন্দ করেন। তাই আজ খুব সহজে কিভাবে মেজবানি মাংস রান্না করা যায় তার রেসিপি দেওয়া হলো-

 

মসলায় মাংস মাখানোর জন্য : লবঙ্গ- ৫টি, দারুচিনি- ২টি (মাঝারি), গোলমরিচ- ১৫টি, তেজপাতা- ২টি, লবণ- ১ টেবিল চামচ, আদা-রসুন বাটা- ৩ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ বাটা- ৪ টেবিল চামচ, বাদাম বাটা- ২ টেবিল চামচ, সরিষার তেল- ২ টেবিল চামচ, লাল মরিচ গুঁড়া- ২ টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া- ১/২ টেবিল চামচ, এলাচ- কয়েকটি, কালো এলাচ- ১টি, তারা মৌরি- ১টি।

 

প্রস্তুত প্রণালি : পোস্টদানা বাদে মেজবানি মসলা তৈরির উপকরণগুলো সব একটি শুকনা প্যানে অল্প আঁচে চুলায় টেলে নিন। টালা মসলার সঙ্গে ১ টেবিল চামচ পোস্তদানা দিয়ে সব একসঙ্গে ব্লেন্ড করুন। একটি বড় বাটিতে মাংস নিন। মেজবানি মসলা ও মাংস মাখানোর মসলা সব দিয়ে মেখে নিন মাংস।

 

উপকরণ : গরুর মাংস- পেঁয়াজ কুচি- ১ কাপ, টমেটো- ২টি (মাঝারি করে কাটা), কাঁচামরিচ- কয়েকটি, গরম মসলার গুঁড়া- ১ চা চামচ, সরিষার তেল- আধা কাপ এবং দেড় কেজি (হাড় ও চর্বিসহ)।

 

মেজবানি মসলা তৈরির উপকরণ : মৌরি- ১/২ টেবিল চামচ, শুকনো মরিচ- কয়েকটি, মেথি- ১ চা চামচ, জয়ত্রী- ছোট ২টি, রাঁধুনি- ১ চা চামচ, পোস্তদানা- ১ টেবিল চামচ, আস্ত জিরা- ১ টেবিল চামচ, সাদা সরিষা- ১/২ টেবিল চামচ, জয়ফল- ১টি, ধনিয়া- ১ টেবিল চামচ।

 

চুলায় প্যান বসিয়ে সরিষার তেল গরম করুন। তেল গরম হলে পেঁয়াজ কুচি লাল করে ভেজে নিন। পেঁয়াজ লাল হয়ে গেলে টমেটো কুচি

দিয়ে ভাজুন একসঙ্গে। টমেটো নরম হয়ে গেলে মাখিয়ে রাখা মাংস দিয়ে দিন প্যানে। ভালো করে নেড়েচেড়ে প্যান ঢেকে দিন।

 

 

১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। মাঝে দুই-একবার নেড়ে দিতে হবে। মাংস ভালোভাবে কষানোর পর ২ কাপ পানি দিয়ে নেড়ে ঢেকে দিন প্যান। চুলার আঁচ কমিয়ে দিন। প্রায় ৪০ মিনিট অপেক্ষা করুন মাংস সেদ্ধ হওয়ার জন্য। মাংস সেদ্ধ হয়ে গেলে গরম গরম পরিবেশনের জন্য গরম মসলার গুঁড়া ও কয়েকটি আস্ত কাঁচামরিচ দিয়ে নেড়ে, নামিয়ে খাবারের পাতে তুলে দিন সুস্বাদু মেজবানি মাংস।